আজ মঙ্গলবার | ২১ আগস্ট, ২০১৮ ইং
| ৬ ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ৯ জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী | সময় : দুপুর ১:৩৬

মেনু

নড়িয়ায় স্ত্রী‌কে শ্বাস‌রোধ ক‌রে হত্যা, স্বামী পলাতক

নড়িয়ায় স্ত্রী‌কে শ্বাস‌রোধ ক‌রে হত্যা, স্বামী পলাতক

নিজস্ব প্রতিবেদক
শুক্রবার, ০১ জুন ২০১৮
১২:৩৪ অপরাহ্ণ
6479 বার

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় নিজ বসত ঘর থেকে শুক্রবার সকালে মনি মালা (২৮) নামে এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

অভিযোগ উঠেছে স্বামী জসিম বেপারী (৩৪) পারিবারিক কলহের জের ধরে হাত পা বেধে তার স্ত্রী‌ ম‌নি মালা‌কে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে পালিয়েছে। নিহত মনি মালা নড়িয়া পৌরসভার ৩ নং ওয়া‌র্ডের সোনার বাজার খ‌লিফা কা‌ন্দি গ্রামের মো. ইয়ার বক্স সরদারের মেয়ে।

পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নড়িয়া থানা পুলিশ ও নিহত ম‌নি মালার ভাই জাহাঙ্গীর সরদার জানান, গত ২০০৮ সা‌লে নড়িয়া উপজেলার সাহেবের চর (চর ন‌ড়িয়া) গ্রামের আবেদ আলী বেপারীর ছেলে জসিম বেপারীর সাথে একই উপজেলার সোনার বাজার খ‌লিফা কা‌ন্দি গ্রামের ইয়ার বক্স সরদারের মেয়ে মনি মালার প্রেম ক‌রে বিয়ে হয়। বিবাহিত জীবনে তাদের ঘরে শাহাদাৎ হো‌সেন (৮) ও ম‌হিউ‌দ্দিন (৬) না‌মে দুটি ছেলে সন্তান র‌য়ে‌ছে।

বিয়ের পর থেকেই যৌতুকসহ নানা পারিবারিক বিষয় নিয়ে মনি মালার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো জসিম বেপারী। পদ্মার ভাঙ্গনে‌ জসিম বেপারীর বাড়ি নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেলে এক বছর যাবৎ উপজেলার বাশতলা এলাকায় জমি ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছিল। বৃহস্পতিবার রাতে আবার মনি মালা ও তার স্বামী জসিম বেপারীর স‌ঙ্গে পা‌রিবা‌রিক বিষয়‌ নি‌য়ে ঝগরা হয়। পরে শিশুরা ঘুমিয়ে পরলে হাত পা বেঁধে ম‌নি মালা‌কে শ্বাস‌রোধ করে হত্যা করে পালিয়ে যায় জসিম। শুক্রবার সকালে শিশু সন্তানেরা ঘুম থেকে উঠে মেঝেতে মায়ের লাশ পরে থাকতে দেখে কান্না শুরু করলে প্র‌তি‌বে‌শিরা ছুটে আসে। হাত পা বাধা অবস্থায় ঘরের মেঝেতে লাশ পরে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় নড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

নিহতের বড় বোন মর্জিনা বেগম বলেন, জসিম প্রেমের সম্পর্ক করে আমার বোনকে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ওর (মনি মালাকে) মারধর করতো। একাধিক বার সমাজের মুরব্বিরা মিমাংশা করে দিয়েছে। জসিম আমার বোনকে নির্মম ভাবে হত্যা করেছে। আমরা হত্যাকারীর বিচার চাই।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে হাত পা বাধা অবস্থায় লাশ উদ্ধার করেছে। লাশের সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। স্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে। ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য

comments




  • সর্বশেষ প্রকাশিত  
  • সর্বাধিক পঠিত  

Assign a menu in the Left Menu options.
error: Content is protected !!