আজ বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

নড়িয়া বিএল উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি: পূনর্মিলনী রেজি: কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন

নড়িয়া বিহারী লাল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি ও প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের পূনর্মিলনীর রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করা হয়।

শুক্রবার ৩০শে আগষ্ট বেলা ১১টায় নড়িয়া বিহারী লাল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক ও প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের সমন্বয়ে একটি আহবায়ক কমিটি করে করে একটি মোড়ক উন্মোচন মাধ্যমে এ শতবর্ষ পূর্তি ও প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের পূনর্মিলনীর রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করা হয়।

এ সময় আহবায়ক কমিটি করা হয়। আহবায়ক কমিটিতে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ শরীয়তপুর জেলা শাখার আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আবুল কালাম আজাদকে আহবায়ক, বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মিন্টু চন্দ্র রায়কে সদস্য সচিব ও প্রাক্তন ছাত্র ওবায়দুল হককে সমন্বয়ক করে কমিটিটি করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক সমর কুমার মন্ডল, প্রাক্তন ছাত্র আহমেদ জুলহাস, আশিক রন, বি এম সিরাজুল ইসলাম, শহিদ হোসেন সংগ্রাম, শাহেআলম শিকদার, বি এম মনির হোসেন, মোঃ মহসিন আলী, শাহআলম সর্দার, দেলোয়ার আকন, মাহমুদুর রহমান হারিছ, শাহীন খান, আতিক ইকবাল রবিন, আফরুজ্জামান মিতুল সহ অনেকে।

কমিটির সদস্য সচিব ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মিন্টু চন্দ্র রায়কে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, নড়িয়া বিহারী লাল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়টি বিহারী লাল ১৯১৯ সালে সর্বপ্রথম নিজস্ব অর্থায়নে প্রতিষ্ঠা করেন। এরই ধারাবাহিকতায় পর্যায়ক্রমে এ বিদ্যালয়টির মাধ্যমে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে যাচ্ছে এবং জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৮ তে জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পুরষ্কার লাভ করে। ১১-ই অক্টোবর ২০১৮ সালে সরকারিকরণ হয়। ২০১৯ সালে এ বিদ্যালয়টির ১০০ বছর পূর্ণ হয়েছে। একটি আহবায়ক কমিটি করা হয়েছে, যার মাধ্যমে এ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন করা হবে।

কমিটির আহবায়ক এডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমাদের নড়িয়া বিহারী লাল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০১৯ সালে ১০০ বছর পূর্ণ করেছে। এ উপলক্ষ্যে আমরা আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমের মাধ্যমে কিভাবে শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন ও ছাত্রছাত্রীদের পূনর্মিলনী ঘটানো যায়, এজন্য রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রমের ফরম বিতরণের শুভ উদ্বোধন করা হলো।