আজ সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

শরীয়তপুরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মঞ্চনাটক “লালজমিন” অনুষ্ঠিত

শরীয়তপুরে ৩ নভেম্বর সোমবার সন্ধায় শরীয়তপুর জেলা পুলিশের আয়োজনে পুলিশ লাইনস অডিটোরিয়ামে মুক্তিযুদ্ধ ও যুদ্ধোত্তর বাংলাদেশে নারীর সংগ্রামী জীবন বিষয়ক মঞ্চনাটক “লালজমিন” অনুষ্ঠিত হয়। মোমেনা চৌধুরী অভিনীত এ নাটকটি রচনা করেন মান্নান হীরা। এছাড়া বিভিন্ন কুশীশব এ নাটক প্রকাশে সহযোগিতা করেন। এ মঞ্চনাটকটি দর্শক হিসেবে উপভোগ করেন, পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেনের সভাপতিত্বে জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের, পুলিশ সুপার সহধর্মীনী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(নড়িয়া সার্কেল) কামরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(গোসাইরহাট সার্কেল) মোহাইমিনুল ইসলাম, কমিউনিটি পুলিশের জেলা সভাপতি আলহাজ্ব নুর মোহাম্মদ কোতোয়াল, এডভোকেট পিপি মির্জা হযরত আলী, শরীয়তপুর জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ তালুকদার, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, ডিআই-১ আজহারুল ইসলাম, জেলার সকল থানার ওসি, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও প্রেমিকগণ।

উল্লেখ্য, “লাল জমিন” নাটকের গল্পে দেখা যায় ১৩ ডিঙিয়ে ছুই ছুই ১৪ বছরের কিশোরী কন্যার গল্প। কিশোরীর দু’চোখ জুড়ে মানিক বিলের আটক লাল পদ্মের জন্য প্রেম। তার কৈশরেই শোনে বাপ-মায়ের মধ্যরাতের গুঞ্জন। শুধু দু’টি শব্দ কিশোরীর মস্তকে আর মনে জেগে রয়, মুক্তি-স্বাধীনতা। ঐ বয়সে কিশোরী এক ছায়ার কাছ থেকে প্রেম পায়। বাবা যুদ্ধে চলে যায় অগোচরে কিশোরী নানা কৌশলে যুদ্ধে যাবার আয়োজন করে, সশস্ত্র যুদ্ধ। এবার কিশোরী সেই ছায়া- প্রেম সম্মুখে দাঁড়ায়ে, কিশোরী তার সেনাপতিকে চিনতে পারে। তারপর যুদ্ধযাত্রা… লক্ষ্যে পৌঁছার আগেই পুরুষ যুদ্ধারা কেউ শহীদ হন, কেউ নদীর জলে হারিয়ে যান। পাচ যুবতীসহ যুদ্ধযাত্রা এই কিশোরীর জীবনে ঘটে নানা অভিজ্ঞতা। ১৪ বছরের কিশোরীর ধবধবে সাদা জমিন যুদ্ধকালীন ৯ মাসে রক্তরাঙা হয়ে ওঠে। ‘লাল জমিন’ কিশোরীর রক্তরাঙা অভিজ্ঞতার মুক্তিযুদ্ধ ও যুদ্ধোত্তর এক নারীর সংগ্রামী জীবনের নাট্য প্রকাশ লালজমিন।