আজ সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফর বাতিলের দাবীতে শরীয়তপুরে বিক্ষোভ

ভারতে মুসলমানদের ওপর নির্যাতন বন্ধ ও মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফর বাতিলের দাবীতে শরীয়তপুরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতাকর্মীরা। কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে শুক্রবার (৬ মার্চ) বাদ আছর শহরের পালং উত্তর বাজার থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে চৌরঙ্গি মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। এতে নেতৃত্ব দেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ শরীয়তপুর জেলা সভাপতি হাফেজ মাওলানা শওকত আলী।

পরে চৌরঙ্গী মোড়ে এক সংক্ষিপ্ত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, মুফতি তোফায়েল আহমেদ কাসেমী, মাওলানা আবু বকর, এস এম আহসান হাবীব, মাওলানা নাঈম আব্বাস, মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, মাওলানা হযরত আলী ও মাওলানা ফেরদৌস হোসেন প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আসতে দেওয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ভারত ধর্মনিরপেক্ষতা ও গণতন্ত্রের মুখোশ পরে সাম্প্রদায়িক হিন্দুত্ববাদী রাষ্ট্র গঠনের জন্য নতুন নতুন আইন তৈরি করে ভারতেকে মুসলিম শূন্য করায় যে ঘৃণ্য অপচেষ্টা চালাচ্ছে হাজী শরীয়তউল্লাহ’র দেশ ও বঙ্গবন্ধুর দেশের মানুষ এটা মেনে নিবে না।

বিজেপির ছত্রছায়ায় গড়ে উঠা উগ্রবাদী সংগঠনগুলো মুসলিমদের উপর নৃশংস হামলা চালাচ্ছে। দাঙ্গার সময় ১৩ হাজার কল দেয়ার পরেও পুলিশের নিরব ভূমিকা রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্রের প্রমাণ বহন করে। ইতিহাস সাক্ষী দেয় যে মুসলমানদের রক্তখেকো নরেন্দ্র মোদী একজন স্বীকৃত দাঙ্গাবাজ। তাই শান্তি ও সম্প্রীতির এই বাংলাদেশে দাঙ্গাবাজ নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতি দেশ ও জাতির জন্য লজ্জাজনক।