আজ বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

সখিপুরে অটো চালকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার চরসেনসাস ইউনিয়নে জাহিদুল ইসলাম (২২) নামের এক অটো চালকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ৭ এপ্রিল শনিবার সকালে জাহিদুলের বাড়ীর পাশের কদম গাছ থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। এদিকে লাশের ঘাড়ের বাম দিকে ক্ষত চিহ্ন থাকায় তার মৃত্যু নিয়ে নানা রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

জাহিদুল ইসলাম ভেদরগঞ্জ উপজেলার চরসেনসাস ইউনিয়নের বালা কান্দি গ্রামের বাসিন্দা আজিজুল হাওলাদারের ছেলে। সে পেশায় একজন অটো চালক। তার একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল হামিদ সরদার ও অন্যান্যদের সাথে আলাপ কালে জানা যায়, জাহিদুল দুই বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক করে একই গ্রামের বাসিন্দা মেজবাহ উদ্দিন বেপারীর মেয়ে মৌটুসীকে বিয়ে করে। সংসার জীবনে তারা সুখী ছিল না। তারই ধারাবাহিকতায় ৬ মাস আগে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এরপর সে এলাকার খারাপ ছেলেদের সাথে মিশে মাদকের নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ে। এ নিয়ে তার পরিবারের লোকজনের সাথে প্রায়ই তার কথা কাটাকাটি হয়।

শুক্রবার রাতে নেশা করার বিষয় নিয়ে পিতা আজিজুল হাওলাদার এবং অন্যান্য ভাইদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় তাকে তার ভাই এবং বাবা মিলে মারধর করে। ঐ সময় নিজেকে শেষ করে দিবে বলে সে বটি দিয়ে তার নিজের ঘাড়ে আঘাত করে।

এ ব্যাপারে জাহিদুলের বাবা আজিজুল হাওলাদার বলেন, জাহিদুলের সাথে শুক্রবার রাতে আমাদের ঝগড়া হয়েছিল। এ সময় আমি তাকে বটি দিয়ে আঘাত করেছিলাম। ঐ সময় নিজেকে শেষ করে ফেলবে বলে সে বটি দিয়ে তার নিজের ঘাড়ে আঘাত করে। রাতের কোন এক সময় সে বাড়ী থেকে বের হয়ে যায় সেটা আমি জানি না। পরে সকালে আমার নাতি হানজালা কদম গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ দেখতে পায়।

এ ব্যাপারে সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মঞ্জুরুল হক আকন্দ বলেন, লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। লাশের গায়ে গুরুতর তেমন আঘাত আমরা দেখিনি। তবে ময়না তদন্ত শেষে সব বলা যাবে।-songlap71