আজ শনিবার, ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১০ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

শরীয়তপুরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সর্দার নিহত

শরীয়তপুর সদর উপজেলার দাসার্ত্তা গ্রামে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে সালাউদ্দিন (৩৯) নামে এক ডাকাত সর্দার নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সালাউদ্দিন ওরফে সাগর ওরফে কামাল ওরফে আসলাম গোসাইরহাট উপজেলার গোসাইরহাট ইউনিয়নের ভোগকাঠি গ্রামের মৃত আলী আহম্মেদ হাওলাদারের ছেলে। তার বিরুদ্ধে ডাকাতি ৬টি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানান, শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ থানার একটি প্যানেল কোর্ট ফৌজদারি কার্যবিধি মামলার আসামী সালাউদ্দিন ওরফে সাগর ওরফে কামাল ওরফে আসলাম গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জাজিরার কাজিরহাট এলাকা থেকে ওই ডাকাতাকে আটক করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর তার তথ্য অনুযায়ী সালাউদ্দিনকে নিয়ে রাত দেড়টার দিকে শহরের দাসার্ত্তা গ্রামের মসজিদের দক্ষিণে পুকুরের পাশের বাগানে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পালং মডেল থানা পুলিশ। এসময় দাসার্ত্তা গ্রামে ওঁত পেতে থাকা সালাউদ্দিনের সংঘবদ্ধ ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ করে গুলি ছুড়ে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এক পর্যায়ে ডাকাতরা পিছু হটলে সালাউদ্দিনকে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ। আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। সালাউদ্দিনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়। গোলাগুলিতে পালং মডেল থানার এসআই (নিঃ) এস্কেন্দার, এএসআই (নিঃ) শেখ নাছিম, কনস্টেবল-৪৯৯ মো. মিরাজ হোসেন ও কনস্টেবল-৬৩৫ মো. সাদ্দাম হোসেন আহত হন।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি শুটারগান, ছয়টি ককটেল, রানদা চারটি, ছুড়ি একটা, চাইনিজ কুড়াল একটা ও কালো কাপড়ের দুটি ব্যাগপ্যাক উদ্ধার করা হয়। নিহত সালাউদ্দিনের নামে যাকাতি ৬টি মামলা রয়েছে।