আজ সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

নড়িয়ায় পদ্মার ভাঙন রোধে চরখনন কাজের উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক: শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার নদী ভাঙন রোধে নেয়া প্রকল্পের চরখনন কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। পদ্মা নদীর নড়িয়ার তীরের বিপরিতে বসাকেরচর এলাকায় শুক্রবার দুপুরে এ খনন কাজের উদ্বোধন করেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি। নদীর স্রােত নড়িয়ার তীর থেকে সরিয়ে নিতে ১১ দশমিক ৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য চরটি খনন করার উদ্যোগ নেয়া হয়। চরখননের জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান খুলনা শীপইয়ার্ড প্রকল্প এলাকায় চারটি খনন যন্ত্র এনেছে।

উদ্বোধনের সময় মন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী একেএম ওয়াহিদ উদ্দিন চৌধুরী, পাউবোর প্রধান সমন্বয়ক কাজী তোফায়েল, পাউবোর তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল হেকিম ও প্রকল্প পরিচালক প্রকাশ কৃষ্ণ সরকার।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল হেকিম বলেন, নদী গবেষনা ইনষ্টিটিউটের ডিজাইনের আদলে তাদের চিহ্নিত করা জায়গার পাশ দিয়ে খনন করা হবে। গত বর্ষা মৌসুমের পর জেগে ওঠা চরটিই আপাতত খনন করে অপসারন করা হচ্ছে। ওই চর খননের পর নদীর স্রােত সেই চ্যানেল দিয়ে প্রবাহিত হবে। তখন ভাঙন কমে যাবে।

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেন, আগামী বর্ষার আগে ভাঙন রোধ করা হবে। ভাঙন রোধ করার জন্য সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। নদীর তীর রক্ষার কাজের পাশাপাশি নদীর চর খনন কাজও শুরু করা হল। কাজটি যাতে দ্রুত বাস্তবায়ন করা হয় এ জন্য প্রতি সপ্তাহে আমি নিজে প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করছি। নদীর তীর রক্ষায় জিও ব্যাগ ফেলা হচ্ছে। এখন প্রতিদিন ২৫ হাজার হতে ২৭ হাজার জিও ব্যাগ ফেলা হচ্ছে। এ পর্যন্ত সাড়ে ১২ লাখ ব্যাগ ফেলা হয়েছে। আগামী বর্ষার আগে ২৭ লাগ জিও ব্যাগ ফেলা হবে।