আজ বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

আন্তর্জাতিক উৎসবে স্থান পেয়েছেন বাংলাদেশের তরুন সঙ্গীত শিল্পী প্রসেনজিৎ কর্মকার

রুপক চক্রবর্তীঃ ভারতের হায়দ্রাবাদ শহরে কিছু দিন বাদে হতে চলছে শ্রী সুরভী একাডেমি অব পারফর্মিং আর্টস কর্তৃক আয়োজিত ৫ম আন্তর্জাতিক গান ও নাচ উৎসব। নাচ ও গানের এই আন্তর্জাতিক উৎসবে অংশগ্রহন করবেন ভারতসহ বাংলাদেশ, স্পেন, জার্মানি ও নেপালের প্রতিভাবান সঙ্গীত এবং নৃত্য শিল্পীরা। শ্রী সুরভী একাডেমি অব পারফর্মিং আর্টস কর্তৃক আয়োজিত ৫ম আন্তর্জাতিক গান ও নাচ উৎসবে বাংলাদেশ থেকে ডাক পেয়েছেন তরুন প্রতিভাবান আধুনিক সঙ্গীত শিল্পী প্রসেনজিৎ কর্মকার। আগামী জুনের শুরুতেই তিনি আন্তর্জাতিক এই উৎসবে অংশগ্রহন করবার উদ্দেশ্য নিয়ে হায়দ্রাবাদের পথে দেশ ছাড়বেন। শ্রী সুরভী একাডেমি অব পারফর্মিং আর্টস কর্তৃক আয়োজিত ৫ম আন্তর্জাতিক গান ও নাচ উৎসবে অংশ নিবেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত ৩০০ জন সঙ্গীত এবং নৃত্য শিল্পী। যাদের মধ্যে প্রসেনজিৎ কর্মকার একমাত্র বাংলাদেশ হতে ডাক পাওয়া সঙ্গীত শিল্পী। এই তরুন প্রতিভাবান আধুনিক সঙ্গীত শিল্পী প্রসেনজিৎ কর্মকারের ছোট বেলা থেকেই সঙ্গীতের চর্চা শুরু। তিনি ১৯৯৬ সালের ১৮ই আগষ্ট বরগুনা জেলার সবুজ শ্যামলে ঘেরা বেতাগী উপজেলায় মনসা মায়ের পূজার শুভ দিনে পিতা মাতার মুখ আলো করে এই সুন্দর পৃথিবীতে আসেন। প্রসেনজিৎ এর পিতার নাম শ্রী যুক্ত বাবু পরেশ চন্দ্র কর্মকার, মাতা শ্রী মতি জয়ন্তী রানী কর্মকার। মাতা সঙ্গীতের বন্ধনে আবদ্ধ থাকার কারনে সেই ধারাবাহিকতায় তাহার সঙ্গীতের হাতে খড়ি তার মায়ের হাত ধরেই। এরপর সে বাল্যগুরু মিলন কর্মকারের হাত ধরে দক্ষিনবঙ্গের সুনাম ধন্য সঙ্গীত সাধন গোপীমোহন কর্মকারের সানিধ্য লাভ করেন। বর্তমানে প্রসেনজিৎ সঙ্গীতের মতো মহান বিদ্যা লাভের পাশাপাশি ইঞ্জিনিয়ারিং এ পড়াশুনা করেছেন। তিনি সিভিল প্রকৌশল বিভাগে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেছেন। এছাড়া ও তিনি ইন্ডিয়া সঙ্গীত রির্চাজ ইনষ্টিউড এর সাথে সম্পৃক্ত রয়েছেন। তিনি দীর্ঘ পনেরো বছর যাবৎ শাস্ত্রীয় ও ধ্রুপদ সাধনায় অধ্যয়নরত আছেন। বর্তমানে তিনি সুনামধন্য পন্ডিত শ্রী অজয় চক্রবর্তী স্নেহ ধন্য শিষ্য পন্ডিত তুষার দত্তের ছাত্র হিসেবে কোলকাতায় অধ্যয়নরত আছেন। প্রসেনজিৎ কর্মকার উপ – মহাদেশের সুনামধন্য, অত্যন্ত গুনী, সঙ্গীতঅজ্ঞ হৈমন্তী সুক্লার স্নেহধন্য ব্যক্তি। তিনি নজরুল সঙ্গীত সাধক সুমন চৌধুরী ও বিজন চন্দ্র মিস্তির নিকট হতে নজরুলগীতির শিক্ষা লাভ করেন। প্রসেনজিৎ বলেন, গান আমার হৃদয়ের একটি অংশ। আমি গান গাইতে ভালবাসি, মানুষকে গান শুনাতে ভালবাসি। আমার গান শুনে যদি কারো ভাললাগে এর চাইতে বড় আর কি হতে পারে? আমি সর্বদা চেষ্টা করবো শ্রোতাদের ভাল কিছু দেওয়ার জন্য। পরম করুণাময় সৃষ্টিকর্তার অশেষ কৃপায় এবং শ্রোতাগনের আশির্বাদে আমি শ্রী সুরভী একাডেমি অব পারফর্মিং আর্টস কর্তৃক আয়োজিত ৫ম আন্তর্জাতিক গান ও নাচ উৎসবে বাংলাদেশ থেকে একমাত্র সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে স্থান পেয়েছি। এই সম্মান আমার কাছে অনেক বড় পাওনা। আমি বিশ্বাস করি আন্তর্জাতিক ঐ মঞ্চে আমি ভাল কিছু বাংলাদেশের মান বৃদ্ধি করতে পারব। সবাই আমার জন্য আর্শিবাদ করবেন।