শনিবার, ৮ আগস্ট, ২০২০ ইং, ২৪ শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ জিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরী
শনিবার, ৮ আগস্ট, ২০২০ ইং, ২৪ শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ জিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরী
শনিবার, ৮ আগস্ট, ২০২০ ইং

শরীয়তপুরে রোগী জিম্মি করে পাঁচগুণ ভাড়া আদায় অ্যাম্বুলেন্স চালকের

শরীয়তপুরে রোগী জিম্মি করে পাঁচগুণ ভাড়া আদায় অ্যাম্বুলেন্স চালকের

রোগী‌দের জি‌ম্মি ক‌রে পাঁচগুণ ভাড়া আদা‌য়ের অভি‌যোগ উঠে‌ছে শরীয়তপুর সদর হাসপাতা‌লের অ্যাম্বু‌লেন্স চালক জাহাঙ্গীর হো‌সেনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় শরীয়তপুর সিভিল সার্জন বরাবর গত ২২ সে‌প্টেম্বর লিখিত অভি‌যোগ দিয়েছেন মা‌নিক মোল্যা নামের এক ব্যক্তি।

লিখিত অ‌ভি‌যোগ এবং ভুক্তভোগী রোগী‌র স্বজনদের সঙ্গে কথা ব‌লে জানা যায়, সদর হাসপাতালের দুটি অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। এখান থেকে কোনো রোগী ঢাকা, ফ‌রিদপুর, বরিশালসহ বি‌ভিন্ন এলাকার হাসপাতালে নেওয়ার জন্য হাসপাতা‌লের অ্যাম্বু‌লে‌ন্স প্রয়োজন হ‌লে চালক জাহাঙ্গীরের স‌ঙ্গে যোগা‌যোগ কর‌তে হয়। হাসপাতা‌লে অ্যাম্বু‌লেন্স থাক‌লেও তার সঙ্গে যোগা‌যোগ করলে গা‌ড়ি নেই, দূ‌রে আছে ব‌লে নানা টালবাহানা করেন। প‌রে অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করতে স্বাভাবিকের চেয়ে তিন থেকে পাঁচগুণ বে‌শি ভাড়া দাবি ক‌রেন তি‌নি। শুধু তাই নয়, ঢাকাসহ দেশের বি‌ভিন্ন স্থান থে‌কে শরীয়তপুর আসা অ্যাম্বু‌লেন্সের চালক‌দের যোগসাজশেও বে‌শি ভাড়া আদায় ক‌রে তার ভাগ নি‌চ্ছে জাহাঙ্গীর। জাহাঙ্গী‌রের দুর্নী‌তির কার‌ণে অতি‌ষ্ঠ রোগীর স্বজনরা।

অভি‌যোগকারী মা‌নিক মোল্যা জানান, গত ১৯ সে‌প্টেম্বর তার ভ‌গ্নিপ‌তি ইউনুস বেপারীকে মুমূর্ষু অবস্থায় শরীয়তপুর থে‌কে ঢাকা মে‌ডি‌কেল ক‌লেজ হাসপাতালে নি‌তে সদর হাসপাতা‌লের অ্যাম্বু‌লেন্স পান‌নি। প‌রে হাসপাতা‌লেই ঢাকা মে‌ডি‌কেল ক‌লেজ হাসপাতা‌ল থেকে আসা এক‌টি গা‌ড়ি পাওয়া যায়। চালক‌কে ভাড়ার কথা জি‌জ্ঞেস কর‌লে জাহাঙ্গী‌রের সঙ্গে যোগা‌যোগ কর‌তে ব‌লেন। তার সঙ্গে যোগা‌যোগ কর‌লে নি‌র্দিষ্ট ভাড়ার চে‌য়ে কয়েকগুণ বে‌শি দা‌বি ক‌রেন। প‌রে দুই ঘণ্টা দে‌রি ক‌রে বে‌শি ভাড়ায় ঢাকায় পাঠানো হয় ইউনুস বেপারী‌কে।

নাম প্রকা‌শ্যে অনিচ্ছুক ভুক্তভোগী বেশ কয়েকজন ব‌লেন, হাসপাতা‌লের রো‌গী‌দের জি‌ম্মি ক‌রে তিন থেকে পাঁচগুণ বে‌শি ভাড়া নি‌চ্ছেন জাহাঙ্গীর। এর প্রতিবাদ কর‌লে বি‌ভিন্নভা‌বে হুম‌কি ‌দেন তিনি। বড় বড় লোক‌দের সঙ্গে তার হাত। তার দুই সন্তান বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছেন; যেখানে অনেক খরচ। এখানকার একাধিক ক্লিনিকের অংশীদার তিনি। সরকারি হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স চালকের এত টাকার উৎস কোথায়?

জানতে চাইলে সদর হাসপাতা‌লের অ্যাম্বু‌লেন্স চালক জাহাঙ্গীর হো‌সেন ব‌লেন, ‘আমার বিরুদ্ধে যেসব অভি‌যোগ করা হ‌য়ে‌ছে তা মিথ্যা।’

শরীয়তপুর সি‌ভিল সার্জন খ‌লিলুর রহমান ব‌লেন, জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে অভি‌যোগ পেয়েছি। এ ঘটনায় তিন সদস্য বি‌শিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হ‌য়ে‌ছে। তদন্ত প্রতিবেদনে অভি‌যোগ প্রমাণিত হ‌লে জাহাঙ্গী‌রের বিরু‌দ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হ‌বে।-deshrupantor

মন্তব্য

comments

শরীয়তপুর নিউজে প্রকাশিত কোন তথ্য, ছবি, রেখচিত্র, আলোকচিত্র ও ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যাবহার করা নিষেধ!!


error: Content is protected !!