আজ বুধবার| ২২ জানুয়ারি, ২০২০ ইং| ৯ মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শরীয়তপুরে ৪ দিনব্যাপী আয়কর মেলার শুভ উদ্বোধন

শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯ | ৬:০৭ পূর্বাহ্ণ | 2136 বার

শরীয়তপুরে ৪ দিনব্যাপী আয়কর মেলার শুভ উদ্বোধন

“কর প্রদানে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ, নিশ্চিত হোক রূপকল্প বাস্তবায়ন” এবং “আয়করের প্রবৃদ্ধি, দেশ ও দশের সমৃদ্ধি” এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শরীয়তপুরে ৪(চার) দিনব্যাপী “আয়কর মেলা”-২০১৯ এর শুভ উদ্বোধন করা হয়।
শরীয়তপুরে ১৫ নভেম্বর শুক্রবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ঢাকা কর অঞ্চল-০৭ সার্কেল-১৪৯(শরীয়তপুর)-এর আয়োজনে শরীয়তপুর সদর উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে সকাল ১০ টায় ২০১৯-এর এ “আয়কর মেলা” শুভ উদ্বোধন হয়।
৪(চার) দিনব্যাপী এ আয়কর মেলার শুভ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের।
ঢাকা কর অঞ্চল ৭-এর উপ-কর কমিশনার মোঃ জাহিদুল ইসলাম-এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, শরীয়তপুর জেলা পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন, ঢাকা কর অঞ্চল ৭-এর উপ-কর কমিশনার কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম ও ঢাকা কর অঞ্চল-৭ শরীয়তপুর সার্কেল-১৪৯ এর সহকারী কর কমিশনার হাফিজুল ইসলাম।
ডা. মনিরুল ইসলামের উপস্থাপনায় আরও উপস্থিত থেকে আরও বক্তব্য রাখেন, আয়কর দাতা শরীয়তপুর ডায়াবেটিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ডা. শেখ মোস্তফা খোকন ও এডভোকেট বজলুর রহমান আখন্দ।
এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, শরীয়তপুর সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাবিনা ইয়াসমিনসহ ঢাকা কর অঞ্চল-৭ শরীয়তপুর সার্কেল-১৪৯ এর সহকারী কর কমিশনার কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী, করদাতাগণ, সাংবাদিক, শিক্ষক-শিক্ষার্থী প্রমূখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাজী আবু তাহের বলেন, আমাদের বেচে থাকার জন্য অক্সিজেন প্রয়োজন, তেমনি ট্যাক্স হচ্ছে রাষ্ট্রের বেচে থাকার অক্সিজেন। রাষ্ট্রের উন্নয়নের বেশিরভাগ কর আসে রাজস্ব খাত থেকে। আমরা যদি ট্যাক্স(কর) না দেই, তাহলে রাষ্ট্রের উন্নয়ন সম্ভব নয়। বিশ্বের উন্নত দেশগুলো ট্যাক্স(কর) ও জরিমানা আদায় করে উন্নয়নমূলক কাজ করে ধীরে ধীরে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। আমাদের দেশের সরকার পদ্মাসেতুসহ মেগা প্রজেক্টের কাজ ট্যাক্স আদায় করে বাস্তবায়ন করার জন্য কাজ হাতে নিয়েছে। যাদের আড়াই লক্ষ টাকা বাৎসরিক আয়, তাকে আয়করের আওতায় আনা হয়েছে। আমাদের দেশে ২৬ লাখের মতো লোক আয়কর দিচ্ছে। প্রতিবছর ৯০ লক্ষ লোক ভাতা পাচ্ছে। দারিদ্র্যের হার ২০১২ সালে ছিল ৪৭%। যা এখন ২০১৯ সালে দাড়িয়েছে ২১%। অতি দারিদ্রের ২১% থেকে নামিয়ে ১১% কমে এসেছে। এটা সম্ভব হচ্ছে আমাদের যাদের অর্থ আছে, তারা ট্যাক্স দেই বলে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে ২০৪১ সালের মধ্যে যে উন্নত রাষ্ট্রের স্বপ্ন নিয়ে বিভিন্ন কাজ হাতে নিয়ে, তা বাস্তবায়ন করতে আমাদের ট্যাক্স দিতে হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন বলেন, দেশের উন্নয়নে ট্যাক্স(আয়কর) গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কিন্তু আমাদের দেশের অনেকেই ট্যাক্স(আয়কর) ফাকি দিয়ে থাকে, যা দেশের জন্য ক্ষতিকর। আমরা যারা সরকারি চাকরিজীবি, তাদের কর দিতে অনেক নিয়ম-কানুন মানতে হয়। এটা যদি আরও সহজলভ্য হতো, তাহলে ট্যাক্স(আয়কর)-এর ফাকি কম হতো।
সভাপতির বক্তব্যে মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা যারা কর দেওয়ার উপযোগী, তারা অবশ্যই কর দেবো। স্বতোস্ফূর্তভাবে সবাই কর দিবেন, দেশের উন্নয়নে সহযোগিতা করবেন।
উল্লেখ্য, শরীয়তপুরে ১১ হাজার জনের উপর ট্যাক্স (টিন) নম্বরের অন্তর্ভূক্ত। প্রায় ৫ হাজার জন ট্যাক্স দাখিল করছেন।
আয়কর মেলা স্বার্থক করতে এবারের আয়কর মেলায় যেসব সেবা নির্ধারণ করা হয়, তন্মধ্যে- ১. নতুন করদাতাগণ এর জন্য ১২ ডিজিট টি.আই.এন রেজিস্ট্রেশন এবং পুরাতন করদাতাগণের জন্য টি.আই.এন রি-রেজিস্ট্রেশন করার সু-ব্যবস্থা। ২.আয়কর রিটার্ন ফরম এবং সিটিজেন চার্টার সরবরাহ আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার ব্যবস্থা এবং তাৎক্ষণিক প্রাপ্তি স্বীকার পত্র প্রদান। ৩. হেল্প ডেস্ক এর মাধ্যমিক করদাতাগণকে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান। ৪. অধিক্ষেত্র অনুযায়ী আয়কর রিটার্ন জমা দানের সহায়তা করুন। ৫. ই-পেমেন্ট এর মাধ্যমে প্রদানের সুবিধা। ৬. অনলাইন রিটার্ন দাখিল সম্পর্কিত প্রাথমিক ধারণা এবং পাসওয়ার্ড প্রদান। ৭. মেলা প্রাঙ্গণে সোনালী ব্যাংক ও জনতা ব্যাংকের অস্থায়ী বুথের মাধ্যমে আয়করের টাকা পরিশোধের ব্যবস্থা।

:: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন::
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on Google+
Google+
Email this to someone
email
Print this page
Print

মন্তব্য

comments


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা
error: Content is protected !!