বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই, ২০২০ ইং, ২৫ আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই, ২০২০ ইং, ২৫ আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই, ২০২০ ইং

শরীয়তপুরে আরো ২ জনের করোনা পজিটিভ, মৃত্যু ১, সুস্থ ৫

শরীয়তপুরে আরো ২ জনের করোনা পজিটিভ, মৃত্যু ১, সুস্থ ৫

সারাদেশে ক্রমশ বেড়েই চলেছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। তারই ধারাবাহিকতায় শরীয়তপুরেও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজ সোমবার
(১৭ই মে) শরীয়তপুর জেলায় আরো দুইজন নভেল করোনা ভাইরাস অথাৎ কোভিট-১৯ এ আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। যার মধ্যে একজন রোগীর মারাও গিয়েছেন এবং পূর্বে আক্রান্ত পাচজন করোনা রোগী সুস্থ ঘোষনা করা হয়েছে বলে অদ্য রাতে জেলা স্বাস্থ্য প্রশাসন কতৃক এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এ নিয়ে শরীয়তপুরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর মোট সংখ্যা হলো ৭৩জন। যার মধ্যে সুস্থ হলো আজকের ৫জন সহকারে মোট ২৭জন এবং আজকের মৃত্যু সংখ্যা সহকারে মোট মারা গিয়েছে ৩জন।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত জেলায় নতুন এই ২জন রোগীর মধ্যে শরীয়তপুর জেলার সদর উপজেলার চিকন্দী ইউনিয়নের ১জন। তিনি একজন মহিলা এবং তিনি সম্প্রতি সময়ে ঢাকা হতে এসেছে। অপর রোগী জেলার নড়িয়া উপজেলার ভোজেশ্বর ইউনিয়নের বাসিন্দা। এ রোগী একজন ৯ বছরের মেয়ে শিশু। গত ১২ই মে এই শিশু ঢাকা শিশু হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যায়। এরপরে তার উক্ত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নমুনা সংগ্রহ করে। আজ জেলায় সেই রিপোর্ট এসেছে এবং সেই রিপোর্টে শিশুর দেহে কোভিট-১৯ পজিটিভ পাওয়া যায়। আজ জেলায় নতুন করে পূর্বে করোনা আক্রান্ত আরো পাচজন রোগীকে সুস্থ ঘোষনা করা হয়েছে। এই পাচজন রোগীর মধ্যে শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলার কনেশ্বর ইউনিয়নের ৩জন এবং ভেদেরগঞ্জ উপজেলার ২জন। গত ১৫ই মে এদের নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর এ পাঠানো হয়েছিলো।

জেলা করোনা কন্ট্রোল রুমের ফোকাল পার্সন ডা. মোঃ আবদুর রশিদ জানান, আজ শরীয়তপুরে আরো দুইজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে এবং পাচজন পুরাতন রোগীকে সুস্থ ঘোষনা করা হয়েছে এবং আজকের দুজন রোগীর মধ্যে কয়েকদিন আগে মৃত্যুবরণ কারী এক শিশুর দেহে কোভিট-১৯ পজিটিভ পাওয়া গেছে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত জেলায় নতুন এই ২জন রোগীর মধ্যে শরীয়তপুর জেলার সদর উপজেলার চিকন্দী ইউনিয়নের ১জন। তিনি একজন মহিলা এবং তিনি সম্প্রতি সময়ে ঢাকা হতে এসেছে। অপর রোগী জেলার নড়িয়া উপজেলার ভোজেশ্বর ইউনিয়নের বাসিন্দা। এ রোগী একজন ৯ বছরের মেয়ে শিশু। গত ১২ই মে এই শিশু ঢাকা শিশু হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যায়। এরপরে তার উক্ত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নমুনা সংগ্রহ করে। আজ জেলায় সেই রিপোর্ট এসেছে এবং সেই রিপোর্টে শিশুর দেহে কোভিট-১৯ পজিটিভ পাওয়া যায়। আজ জেলায় নতুন করে পূর্বে করোনা আক্রান্ত আরো পাচজন রোগীকে সুস্থ ঘোষনা করা হয়েছে। এই পাচজন রোগীর মধ্যে শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলার কনেশ্বর ইউনিয়নের ৩জন এবং ভেদেরগঞ্জ উপজেলার ২জন। গত ১৫ই মে এদের নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর এ পাঠানো হয়েছিলো। ইতিমধ্যে অদ্য আক্রান্ত রোগীর জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এ পর্যন্ত জেলায় ১৮৩৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। ১৬৮১ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পেয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। আজকের রোগী নিয়ে শরীয়তপুর জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হলো ৭১ জন।

উল্লেখ যে, নতুন আক্রান্ত রোগী সহ শরীয়তপুর জেলার এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭৩ জন। যার মধ্যে শরীয়তপুর সদরে ১৬জন, জাজিরা উপজেলার ৯জন এবং ডামুড্যা উপজেলায় ২২জন এবং নড়িয়া উপজেলায় ১৪ জন এবং ভেদরগঞ্জ উপজেলার ১০জন এবং গোসাইরহাট উপজেলায় ২জন। ইতিমধ্যে শরীয়তপুরে ৩জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী মৃত্যুবরণ করেছেন। যারমধ্যে দুইজন নড়িয়া উপজেলার এবং একজন ডামুড্যা উপজেলার। সুস্থ হয়েছেন মোট ২৭ জন।

মন্তব্য

comments

শরীয়তপুর নিউজে প্রকাশিত কোন তথ্য, ছবি, রেখচিত্র, আলোকচিত্র ও ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যাবহার করা নিষেধ!!


error: Content is protected !!