আজ শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০ জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

৬২ লক্ষ যুবদের প্রশিক্ষণ দিয়েছি আমরা : যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেছেন, আমাদের মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে শিক্ষিত, অর্ধশিক্ষিত ও কমশিক্ষিতের আমাদের প্রশিক্ষণের আওতায় এনেছি। ৬২ লক্ষ যুবদের প্রশিক্ষণ দিয়েছি আমরা। ২২ লক্ষ যুবক আত্মকর্মী হয়েছেন। যুব উন্নয়ন অধিদফতরের মাধ্যমে এই পর্যন্ত দুই হাজার ৪৭ কোটি টাকা লোন দিয়েছি।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে আমরা ১০০টি প্রসেসিং প্ল্যান উদ্বোধন করবো। এজন্য প্রধানমন্ত্রী ১০৩ কোটি টাকা বাজেট দিয়েছেন। কাঁচামাল, রবিসষ্যর যখন সিজন থাকবে না। মাছকেও এর আওতায় আনা হয়েছে। আপনারা যেন ন্যায্যামূল্য পান। তাই সংরক্ষণের জন্য এই প্রসেসিং প্ল্যান। যেই কোল্ডস্টোরেজে এক বছর থেকে পাঁচ বছর পর্যন্ত রেখে দেয়া যাবে।

রোববার (১৪ মার্চ) দুপুরে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে জেলা পরিষদের সহযোগিতায় যুব উদ্যোক্তা তৈরি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দারিদ্র্য হ্রাসকরণ শীর্ষক যুব উদ্যোক্তা সম্মেলনে এসে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশকে ভালোবেসে নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন। বাঙালির জন্য তিনি এক যুগেরও বেশি জেল খেটেছেন। বাংলাদেশকে তিনি স্বাধীন করেছেন। স্বাধীনতার স্থপতি, স্বাধীনতার ঘোষক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তারই সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাস্ট্র ক্ষমতায় আছেন। দেশের প্রতি আমাদের চেয়ে তারইতো বেশি দরদ থাকবে। বিশ্বব্যাংক উল্টাপাল্টা কথা বলে, পদ্মাসেতুর জন্য তারা টাকা বরাদ্দ দেননি। বিশ্বব্যাংকের টাকা আমাদের প্রয়োজন হয়নি। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নিজ উদ্যোগে পদ্মাসেতু আজ দৃশ্যমান। পদ্মা সেতু কমপ্লিট হলে এখানে কলকারখানা হবে, উন্নয়ন হবে। যুবকদেরকে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমরা কর্মসংস্থান করতে পারবো।

তিনি আরও বলেন, অনেকেই তামাশা করে বলছিল জীবনে পদ্মাসেতু হবে না, যদি হয় জোড়াতালি দিয়ে হবে। জীবনে গাড়ি চলবে না। কে তামাশা করলো আমাদের দেখার বিষয় নয়। পদ্মাসেতু এখন দৃশ্যমান।

শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, শরীয়তপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আখতার হোসেন, শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার এসএম আশরাফুজ্জামান, যুব উন্নয়নের মহাপরিচালক আজহারুল ইসলাম খান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছাবেদুর রহমান খোকা সিকদার, সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, শরীয়তপুর পৌরসভার মেয়র পারভেজ রহমান।

এসময় জেলার সরকারি-বেসরকারি কার্যালয়ের কর্মকর্তা, পৌরসভার মেয়রগণ, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ, জেলা, উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য

comments

শরীয়তপুর নিউজে প্রকাশিত কোন তথ্য, ছবি, রেখচিত্র, আলোকচিত্র ও ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যাবহার করা নিষেধ!!