আজ সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১২ আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ সফর, ১৪৪৩ হিজরি

রুপক চক্রবর্তী শরীয়তপুর সদর উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত

রুপক চক্রবর্তী কে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শরীয়তপুর সদর উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি নির্বাচিত করা হয়েছে। বুধবার (২৮শে জুলাই) রাতে শরীয়তপুর জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মহসিন মাদবর ও যুগ্ম আহবায়ক রাশেদুজ্জামান রাশেদ এর স্বাক্ষরিত এক ঘোষনা পত্রের মাধ্যমে শরীয়তপুর জেলা ছাত্রলীগের আওতাধীন শরীয়তপুর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষনা করা হয়েছে। উক্ত কমিটিতে ছাত্রনেতা রুপক চক্রবর্তীকে সহ সভাপতি হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে। রুপক চক্রবর্তীর সাথে আলাপ কালে জানা যায়, তিনি শৈশবকাল থেকেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নীতি ও আদর্শে বিশ্বাসী। ছোট বেলা থেকেই রাজনীতির প্রতি তার একটি ভালবাসা জড়িয়ে আছে। শৈশব থেকেই তিনি ছাত্রলীগকে হৃদয়ে ধারন করেন। রুপক স্কুল জীবন থেকেই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের একজন একনিষ্ঠ এবং সক্রিয় কর্মী। তারই ধারাবাহিকতায় আওয়ামিলীগ ও তার অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের প্রায় সকল সভা, সমাবেশ, মিছিল, মিটিং এ উপস্থিত থাকেন রুপক চক্রবর্তী। রুপক চক্রবর্তীর বাড়ি শরীয়তপুর সদর উপজেলা শৌলপাড়া ইউনিয়নের গয়ঘর গ্রামে। তবে তিনি পড়াশোনার সুবাদে ২০১১ সাল থেকে শরীয়তপুর শহরে বসবাস করেন। রুপক চক্রবর্তী ২০০৮ সালে সুনামের সহিত ১১ নং গয়ঘর সরকারি প্রাথমিক থেকে পিএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ এবং বৃত্তি প্রাপ্ত হয়েছেন, এরপর তিনি শরীয়তপুর শহরে পালং তুলাসার গুরুদাস সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১১ সালে জেএসসি এবং ২০১৪ সালে বিজ্ঞান বিভাগ হতে সুনামে সাথে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ন হয়েছেন। তারপর তিনি শরীয়তপুর সরকারী কলেজ থেকে মানবিক বিভাগ হতে ২০১৬ সালে সাফল্যের সহিত এইচএসসি পাশ করেন। এরপর তিনি সুনামধন্য বিদ্যাপীঠ জেড. এইচ. সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগ থেকে অত্যন্ত সফলতার সাথে এলএলবি অর্নাস পাশ করেছেন। বর্তমানে তিনি শরীয়তপুর জজ কোর্টে শিক্ষানবিশ আইনজীবী হিসেবে আছেন এবং পাশাপাশি জাতীয় দৈনিক পত্রিকার সাংবাদিক হিসেবে কর্মরত। রুপক চক্রবর্তী বলেন, আমাকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শরীয়তপুর সদর উপজেলা শাখার সহ সভাপতি নির্বাচিত করায় সর্বপ্রথম কৃতজ্ঞতা জানাই পরম করুনাময় সৃষ্টিকর্তার প্রতি। এরপরে আমি হৃদয়ের হৃদয়স্পন্দন থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই শরীয়তপুর ১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য, প্রিয় নেতা শ্রদ্ধাভাজন বড় ভাই বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য জননেতা ইকবাল হোসেন অপু ভাইয়ের প্রতি। ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সহ সভাপতি ফাহাদ হোসেন তপু ভাই, শরীয়তপুর জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মহসিন মাদবর ভাই, যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদুজ্জামান রাশেদ ভাই, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন খান ভাই ও সাধারণ সম্পাদক রাশেদ সিকদার ভাইয়ের প্রতি। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া সংগঠন। অন্তরের অন্তস্থল থেকে ভালবাসি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কে। আমাকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শরীয়তপুর সদর উপজেলা শাখায় যে গুরু দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তা সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করবো। আমি গর্বিত কারন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের একজন একনিষ্ঠ ক্ষুদ্র কর্মী। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সেই প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ৫২ এর ভাষা আন্দোলন, ৬৬ এর ছয়দফা, ৬৯ এর গন অভুথ্যান, ৭০ এর নির্বাচন ৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু সব সময় লড়াই সংগ্রামে, রাষ্ট্রের উন্নয়নে কাজ করে অগ্রসর ভূমিকা পালন করেছেন। আমি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সেই নীতি ও আদর্শ কে বুকে ধারন করে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করবার লক্ষে আমার অবস্থান থেকে সর্বদা কাজ করে যাবো।

মন্তব্য

comments

শরীয়তপুর নিউজে প্রকাশিত কোন তথ্য, ছবি, রেখচিত্র, আলোকচিত্র ও ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যাবহার করা নিষেধ!!