আজ শনিবার, ১ অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

রেলওয়ে নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে শরীয়তপুর

দেশের সব জেলায় রেল পরিষেবা পৌঁছে দেয়ার অংশ হিসেবে শরীয়তপুর জেলা সদরকে রেলওয়ে নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত করার কথা ভাবছে সরকার।
বাংলাদেশ রেলওয়ে (পশ্চিম অঞ্চল) এর প্রধান প্রকৌশলীর কার্যালয় ইতিমধ্যে জাজিরা থেকে শরীয়তপুর পর্যন্ত ২৪ কিলোমিটার রেললাইন এবং জাজিরাতে রেলওয়ে জংশন নির্মাণের উদ্দেশ্যে সম্ভাব্যতা অধ্যয়নের জন্য একটি প্রস্তাব জমা দিয়েছে। গত ৩১ মার্চ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্র নাথ মজুমদারের নেতৃত্বে একটি কমিটি প্রস্তাবটি খতিয়ে দেখতে বৈঠক করবে বলে বাংলাদেশ রেলওয়ে সূত্র থেকে জানাগেছে।
বর্তমানে বাংলাদেশ রেলওয়ে পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১৬৯ কিলোমিটার রেললাইন নির্মাণের জন্য ৩৯,২৪৬.৭৯ কোটি টাকার পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। ২০১৪ সালের অক্টোবরে রেলপথ মন্ত্রণালয় পরিদর্শনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমস্ত জেলাকে রেলওয়ে নেটওয়ার্কের আওতায় আনার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। বর্তমানে ৪৪টি জেলা বাংলাদেশ রেলওয়ের ৩,০০০ কিলোমিটার নেটওয়ার্কের আওতায় রয়েছে। এছাড়াও, ২০২০ সালের ডিসেম্বরে শরীয়তপুরের একজন সংসদ সদস্য পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের অধীনে শরীয়তপুর জেলা সদরে রেল নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের জন্য রেলওয়ে মন্ত্রণালয়কে একটি আধা-সরকারি চিঠি পাঠিয়েছিলেন বলে সূত্র জানায়।
এ পর্যায়ে বর্তমান পরিস্থিতিতে, বাংলাদেশ রেলওয়ের পরিকল্পনা সেল গত বছরের জুনে রেলের পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলীকে জাজিরায় লাইন ও জংশনের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য একটি প্রকল্প প্রস্তুত করতে বলে। যোগাযোগ করা হলে প্রধান প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম ফিরোজী বলেন, তারা ইতোমধ্যে বাংলাদেশ রেলওয়ের সদর দপ্তরে একটি প্রস্তাব পাঠিয়েছেন। তিনি বলেন, এ গবেষণায় প্রায় ৯ কোটি টাকা ব্যয় হবে। তিনি বলেন, প্রকল্পটি ডিজি-নেতৃত্বাধীন কমিটি অনুমোদন দিলে তা অনুমোদনের জন্য রেলপথ মন্ত্রণালয়ে যাবে। রেলপথ মন্ত্রণালয় প্রস্তাবটি অনুমোদনের পর তা পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। পরিকল্পনামন্ত্রীর অনুমোদনের পর সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ শুরু হবে।
যোগাযোগ করা হলে, বাংলাদেশ রেলওয়ের ডিজি বলেন, তারা সমস্ত জেলাকে রেলওয়ে নেটওয়ার্কের আওতায় আনার পরিকল্পনা অনুযায়ী এই পদক্ষেপ নিয়েছে। তিনি বলেন, “যদি আমরা প্রকল্পটি বাস্তবসম্মত বলে মনে করি, তাহলে আমরা এটি নিয়ে এগিয়ে যাব।” এদিকে শীঘ্রই শরীয়তপুর জেলা রেল সংযোগের আওতায় আসছে। এমন সংবাদে শরীয়তপুর জেলায় বইছে আনন্দের জোয়ার। জেলা প্রশাসনসহ সর্বস্তরের মানুষ এ উদ্যোগের জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে। জেলাবাসী মনে করেন উন্নয়নের মহাসড়কে শরীয়তপুর জেলাকে সংযুক্ত করতে আরো একটি উদ্যোগ এই রেল সংযোগ।
জেলাবাসী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরে এ উদ্যোগের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ.কে.এম এনামুল হক শামীম, শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপুসহ সকল রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণকে এই অগ্রযাত্রায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্য।

মন্তব্য

comments

শরীয়তপুর নিউজে প্রকাশিত কোন তথ্য, ছবি, রেখচিত্র, আলোকচিত্র ও ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যাবহার করা নিষেধ!!