মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, ১৪ আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ সফর, ১৪৪২ হিজরী
মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, ১৪ আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ সফর, ১৪৪২ হিজরী
মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

পাট শিল্পকে বিএনপি ধ্বংস করতে চেয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী

পাট শিল্পকে বিএনপি ধ্বংস করে দিয়েছিল বলে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগের বিরোধিতা সত্ত্বেও পাটকল বন্ধের শর্তে বিশ্বব্যাংকের কাছে থেকে অর্থ নিয়েছিল জোট সরকার।

আজ মঙ্গলবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জাতীয় পাট দিবসের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

‘সোনালি আঁশের সোনার দেশ, পাট পণ্যের বাংলাদেশ’- এই প্রতিপাদ্যে প্রথমবারের মতো জাতীয় পাট দিবস উদযাপন করছে সরকার।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর দেশের পাটকলগুলো ক্রমান্বয়ে বন্ধ করে দেয়। ৯৬ সালে আমরা যখন ক্ষমতায় এলাম বন্ধ পাটকলগুলো খুলে দিতে শুরু করলাম। এরপর ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে আদমজী জুট মিল বন্ধ করে দিয়েছিল। ২০০৮ সালে ক্ষমতায় আসার পর আমরা আবারও তা খুলে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার পরপরই সব বন্ধ কলকারখানা খুলে দিয়ে তা জাতীয়করণ করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটাকে যখনই জাতির পিতা সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন ঠিক তখনই তাকে হত্যা করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পাটশিল্পর সঙ্গে দেশের অর্ধকোটি কৃষক জড়িত। পরিবেশবান্ধব এই পাটের চাহিদা কখনও শেষ হতে পারে না। আমরা পাটের ওপর গবেষণা করার ব্যবস্থা নিয়েছি। আজকে এই পাট গবেষণার ফলে অনেক ধরনের পাট পণ্য উৎপাদন হচ্ছে। আমরা বিদেশে পাট রফতানি করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করছি। এই সম্পদকে যথাযথভাবে কাজে লাগিয়ে দ্রুত যেন দেশের উন্নতি হয়, সেই লক্ষ্যে কাজ করতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘কৃষকরা যেন পাট চাষে মনোযোগী হয় সেজন্য ব্যবস্থা নিতে হবে। পাট উৎপাদন, সংগ্রহ ও সংরক্ষণের ব্যবস্থা করে দিতে হবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘পাট পণ্য উৎপাদনের জন্য যে যন্ত্রপাতি ব্যবহার হয় তা অত্যন্ত পুরনো। আমরা পাট পণ্য উৎপাদনের জন্য নতুন মেশিন ব্যবহার করার উদ্যোগ নিয়েছি। এছাড়া, পাটকলগুলোর তিন হাজার কোটি টাকার ব্যাংক ঋণ ছিল। আমরা তা মওকুফ করে দিয়েছি। সরকারের পক্ষ থেকে ব্যাংকের ঋণ শোধ করার ব্যবস্থা নিয়েছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা পাটের চাদিহা বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন পণ্যের মোড়কে পাটজাত পণ্য বাধ্যতামূলক আইন ২০১০ করে দিয়েছে।’

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী তার পরিহিত শাড়ি, ব্যবহৃত জুতা ও সঙ্গে থাকা ব্যাগটি পাটের বলে জানান।

মন্তব্য

comments

শরীয়তপুর নিউজে প্রকাশিত কোন তথ্য, ছবি, রেখচিত্র, আলোকচিত্র ও ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যাবহার করা নিষেধ!!


error: Content is protected !!