আজ মঙ্গলবার | ২২ অক্টোবর, ২০১৯ ইং
| ৭ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২১ সফর, ১৪৪১ হিজরী | সময় : ভোর ৫:০৩

মেনু

পদ্মার বিচ্ছিন্ন চরে বিদ্যুৎ সংযোগের উদ্বোধন করলেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

পদ্মার বিচ্ছিন্ন চরে বিদ্যুৎ সংযোগের উদ্বোধন করলেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯
৮:২৯ অপরাহ্ণ
104 বার

নিজস্ব প্রতিবেদক: পদ্মা ও মেঘনা নদীর বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চলে সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে ৩৩/১১ কে‌ভি ১০ এম‌ভিএ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে।

সোমবার দুপুরে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ নওপাড়ায় উপকেন্দ্রটি উদ্বোধন করেছেন স্থানীয় সাংসদ পানিসম্পদ মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম।

এ ছাড়াও পদ্মা নদী দিয়ে সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের কাজের উদ্বোধন করা হয়।

দুর্গম চরাঞ্চলে সাবমেরিন ক্যাবলের ও সঞ্চালন লাইনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হবে শরীয়তপুরের চারটি ও চাঁদপুরের তিনটি ইউনিয়ের ২০ হাজার পরিবারকে।

শরীয়তপুর জেলার মাঝ দিয়ে পদ্মা ও মেঘনা নদী প্রবাহিত হয়েছে। নড়িয়া উপজেলার চরআত্রা, নওপাড়া, ভেদরগঞ্জ উপজেলার কাচিকাটা, জাজিরা উপজেলার কুন্ডেরচর ও চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপির, একলাপুর ও জহিরাবদ ইউনিয়ন পদ্মা মেঘনা নদীর দুর্গম চরে অবস্থিত।

পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি সূত্র জানায়, শরীয়তপুরের পদ্মা নদীর তীর হতে চরগুলোর দুরত্ব ছয় হতে সাত কিলোমিটার। ওই দুরত্ব দিয়ে শরীয়তপুর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে পারছিলনা। শরীয়তপুর-২ আসনের সাংসদ এনামুল হক শামীমের উদ্যোগে মুন্সিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ওই চরাঞ্চলে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার কাজ শুরু করে। মুন্সিগঞ্জ আর নড়িয়ার নওপাড়ার মাঝে পদ্মা নদীর দৈর্ঘ্য এক কিলোমিটার। ওই এক কিলোমাটার অংশ সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে পদ্মা নদীর তলদেশ দিয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহের সিদ্ধান্ত হয়।

সাতটি ইউনিয়নের ২০ হাজার পরিবারকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার জন্য ২৩০ কিলোমিটার সঞ্চালন লাইন নির্মাণ কাজ চলছে। ওই এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করার জন্য নওপাড়া এলাকায় ১০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র নির্মান করা হচ্ছে। স্থানীয় মুন্সি পরিবার উপকেন্দ্র নির্মাণের জন্য দুই একর ২৫ শতাংশ জমি দান করেন।

বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র নির্মাণ কাজ ও সাবমেরিন ক্যাবলের লাইন উদ্বোধনের পর উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম সুধী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন। এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের, পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন, জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, মুন্সিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মহাব্যবস্থাপক এএইচ এম মোবারক আলী, নড়িয়া পৌরভার মেয়র শহীদুল ইসলাম বাবু রাড়ি, নওপাড়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান জাকির মুন্সী প্রমূখ।

উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেন, আমার নির্বাচনি ওয়াদা ছিল দুর্গম চরাঞ্চলে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া। পদ্মা নদীতে বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চলে সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হচ্ছে। বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। আগামী দুই মাসের ম‌ধ্যে এখানে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হবে। আগামী ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে সাতটি ইউনিয়নের সকল পরিবারকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হবে।

‌তি‌নি ব‌লেন, বাংলাদেশের প্রত্যেকটি গ্রামে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধামন্ত্রী। আমরা তার ঘোষণা বাস্তবায়ন করছি।

::শেয়ার করুন::
Share on Facebook
Facebook
Share on Google+
Google+
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print
Email this to someone
email

মন্তব্য

comments




নড়িয়ায় মা ইলিশ ধরায় ১০ জেলে আটক
১৫ অক্টোবর ২০১৯ 3500 বার

  • সর্বশেষ প্রকাশিত  
  • সর্বাধিক পঠিত  

error: Content is protected !!