আজ বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
Home » টপ »

শরীয়তপুরে মাদ্রাসার ছাত্রীকে অপহরণের দায়ে ৩ কিশোর গ্রেপ্তার

শরীয়তপুরে এক কিশোরীকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগের ৯৬ ঘণ্টার মধ্যে অপহরণকারী তিন কিশোরকে গ্রেপ্তার ও অপহৃত কিশোরীকে উদ্ধার করেছে পালং মডেল থানা পুলিশ। বুধবার দুপুরে শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার মো. মাহবুবুল আলম প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

অপহৃত কিশোরী শরীয়তপুর সদর উপজেলার একটি মাদ্রাসার দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী। অপহরণের দায়ে গ্রেপ্তারকৃত তিন কিশোর একই উপজেলার শ্রীপাশা গ্রামের বাসিন্দা। পুলিশ সুপার মো. মাহবুবুল আলম ব্রিফিংয়ে লিখিত বক্তব্যে বলেন, অপহৃত ওই কিশোরীর ভাই ফয়সাল আকন গত শনিবার সকাল ১০টার দিকে পালং মডেল থানায় এজহার দায়ের করেন।

এজাহারে উল্লেখ করা হয় তার বোন মাদ্রাসা থেকে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার পথে শরীয়তপুর সদর উপজেলার শৌলপাড়া ইউনিয়নের মোল্লাকান্দি ঢালী বাড়ির সামনে থেকে অভিযুক্ত তিনজনসহ তাদের কয়েকজন সঙ্গীকে নিয়ে কিশোরীকে জোরপূর্বক একটি সিনএনজিতে তুলে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরবর্তী সময়ে অপহরণকারীরা ওই কিশোরীর বড় বোনের কাছে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। দাবিকৃত টাকা দ্রুত সময়ের মধ্যে না দিলে কিশোরীকে হত্যারও হুমকি দেয়।

অপহৃত কিশোরীর বোন অপহরণকারীদের বিকাশের মাধ্যমে ১০ হাজার টাকাও পাঠায়। এরপর ওই কিশোরীর ভাই থানা পুলিশকে জানায়। অপহরণকারীরা প্রত্যেকেই কিশোর হলেও অপহৃত কিশোরীকে তারা ঢাকা, নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্নস্থানে নিয়ে যায়।

পুলিশ তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় ৪ দিনের অভিযান শেষে বুধবার সকাল ৮টার দিকে শরীয়তপুর থেকে অপহৃত কিশোরীকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা কিশোরীকে অপহরণের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। কিশোরীকে অপহরণের সঙ্গে যদি অন্য কেউ জড়িত থাকে, তাহলে অধিকতর তদন্তের মাধ্যমে তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

পুলিশ সুপার মো. মাহবুবুল আলম আরো বলেন, দেশের কিশোরদের অপরাধ থেকে প্রশমিত করতে অভিভাবকসহ সমাজের সব শ্রেণি পেশার মানুষকে আরো কার্যকরী ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান তিনি।