আজ বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

নড়িয়ায় বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে হেল্পারের মৃত্যু

মেরামতের সময়ে বাসের চাকার নিচে চাপা পড়ে মস্তফা সরদার (২০) নামে এক হেলপার নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার শরীয়তপুরের নড়িয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মস্তফা সরদার সদর উপজেলার উত্তর মধ্যপাড়া এলাকার নূর মোহাম্মদ সরদারের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শরীয়তপুর সুপার সার্ভিস নামের একটি পরিবহনের সহকারী হিসেবে কাজ করতেন মস্তফা সরদার। বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই পরিবহনের একটি বাসের চাকা ফেঁসে যাওয়ায় কয়েকজন শ্রমিকের সঙ্গে বাসটিকে মেরামত করতে ঠেলে ওপরে ওঠানোর চেষ্টা করছিলেন মস্তফা সরদার। এ সময় সকলের অজান্তে কোনো এক সময় মস্তফা বাসটির চাকার নিচে ঢুকে পড়েন। পরে বাসের চালক বাসটিকে চালু করে এগোনোর চেষ্টা করলে চাকার নিচে চাপা পড়ে গুরুতর আহত হন মস্তফা। দ্রুত উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে মৃত্যু হয় তার।

বাসচালক মো. আয়নাল বলেন, বাসটি মেরামত শেষে বাসটিকে চালু করার জন্য আমি সিটে গিয়ে বসি। তবে মস্তফা আমাদের কাউকে কিছু না বলে কোনো এক সময় বাসের নিচে গিয়েছিল। পরে বাস চালু করে একটু সামনে নেয়ার চেষ্টা করলে বাসের নিচ থেকে মস্তফা চিৎকার দিয়ে ওঠে। পরে ওকে দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাই।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের চিকিৎসা কর্মকর্তা আকরাম এলাহী বলেন, মস্তফা নামের এক ব্যক্তিকে গুরুতর আহত অবস্থায় নিয়ে আসা হয়েছিল। তার শরীর থেকে প্রচুর পরিমাণে রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। তার সঙ্গে থাকা সবাইকে দ্রুত রক্ত সংগ্রহ করার জন্য বলা হয়েছিল। তবে কিছুক্ষণ পরই তার মৃত্যু হয়।

পালং মডেল থানার ওসি মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশ পাঠিয়েছি। মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থল নড়িয়া থানার আওতাধীন হওয়ায় বিষয়টি নড়িয়া থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে।